স্বাস্থ্যসেবায় ব্যবহৃত সরঞ্জামগুলো জীবাণু ও ব্যাকটেরিয়ার বংশবৃদ্ধির জন্য উপযুক্ত স্থান। সুতরাং, আপনি যদি অসচেতনভাবে দরজার হাতল ব্যবহার করেন কিংবা রোগ নির্ণয় কেন্দ্রে চিকিৎসা সরঞ্জামগুলোর ব্যাপারে সচেতন না হন তবে বিপদ কিন্তু আপনার দিকে ধেয়ে আসবে।

সম্প্রতি গবেষকরা এক গবেষণার ফলে উল্লেখ করেছেন, যদি আপনার চিকিৎসক অস্বাস্থ্যকর স্টেথোস্কোপ ব্যবহার করেন তবে এটি আপনাকে কিছু অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধকের ক্ষেত্রে মারাত্মক রোগ জীবাণুর ঝুঁকিতে ফেলতে পারে।

গবেষণায় বলা হয়েছে, পুনরায় ব্যবহারযোগ্য চিকিৎসা সরঞ্জাম আবারো ব্যবহারের পূর্বে এটি পরিষ্কার করে জীবাণুমুক্ত করে নেওয়া উচিত। কিন্তু চিকিৎসকরা এক দিনে অনেক রোগী দেখার কারণে স্টেথোস্কোপ বা অন্যান্য ব্যবহৃত সরঞ্জামের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি বজায় রাখা কঠিন হয়ে পড়ে। স্ট্যাফিলোকোকাস অরিয়াস, সিডোমোনাস এয়ারুগিনোসা, ক্লোস্ট্রিডিয়াম ডিফিসাইল এবং ভ্যানকোমিসিন-প্রতিরোধী এন্টারোকোকি থেকে চিকিৎসা সরঞ্জামগুলোতে থাকা রোগ সমূহ ছড়িয়ে পড়তে পারে। এতে হতে পারে ইউটিআই, নিউমোনিয়া এবং এমনকি ত্বকের সংক্রমণের মতো রোগ।

ভার্জিনিয়ার ইনফেকশন কন্ট্রোল অ্যান্ড এপিডেমিওলজি’র অ্যাসোসিয়েশন ফর প্রফেশনালস’র প্রেসিডেন্ট লিন্ডা গ্রিনের মতে, স্টেথোস্কোপগুলো সারা দিন ধরে বারবার ব্যবহৃত হয় এবং প্রত্যেক রোগীর শরীরে ব্যবহারের পর তা দূষিত হয়ে যায়, তাই এগুলো অবশ্যই সংক্রমণের সম্ভাব্য কারণ হিসেবে বিবেচনা করা উচিত। এগুলো জীবাণুমুক্ত করতে ব্যর্থ হলে তা স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষার পর রোগীর গুরুতর নিরাপত্তা সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে।

স্টেথোস্কোপ ব্যবহারের ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা বাধ্যতামূলক করে এই সংস্কৃতির ক্ষেত্রে একটি ইতিবাচক পরিবর্তন প্রয়োজন বলে সুপারিশ করা হয়েছে গবেষণার প্রকাশিত ফলে।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া

Leave a comment