বর্তমান সময়ে সবচেয়ে বেশি মানুষ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হচ্ছে। ডায়াবেটিস শুধু একটি রোগই নয়, অনেক রোগের উপসর্গও।

ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য মিষ্টিজাতীয় খাবার ক্ষতিকারক বলা হয়। তাই বলে মিষ্টিজাতীয় সব খাবারই কি নিষেধ? ডায়াবেটিস রোগীদের যদি নিয়মিত মিষ্টিজাতীয় কিছু খাওয়ার ইচ্ছে থাকে, তাহলে এর জন্য ভালো একটি বিকল্প হলো খেজুর।

খেজুর ভরপুর মিষ্টি একটি ফল। সুস্বাদু এই মরু ফলটিতে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় ফাইবার, খনিজ এবং ভিটামিন। স্বাস্থ্যবিষয়ক বিভিন্ন গবেষণায় বলা হয়েছে, খেজুর খেলে ব্লাড সুগার বাড়ে না। বরং এটি স্বাস্থের জন্য বেশ উপকারী। কারণ স্বাস্থের জন্য ভালো এমন অনেক উপাদান খেজুরে রয়েছে।

তবে ডায়াবেটিস রোগীরা নিয়মিত খেজুর খেলে ১ বা ২টি খেতে হবে। স্বাভাবিক খাবারের পাশাপাশি মিষ্টির বিকল্প হতে পারে খেজুর। মূল খাবার নয়। বেশি মাত্রায় খেজুর খেলে ক্ষতিও হতে পারে।

এটি অত্যন্ত নরম ও উপকারী মিষ্টি। ডায়াবেটিস রোগীদের খেজুর খাওয়ার ব্যাপারে একটি নিরীক্ষা চালানো হয়েছে। ১০ জন মানুষকে চার সপ্তাহ নিয়মিত ১০০ গ্রাম খেজুর খাওয়ানো হয়েছে। চার সপ্তাহ পর তাদের ব্লাড গ্লুকোজ বাড়েনি। এবং তাদের কোলেস্টরেলও নিয়ন্ত্রণে ছিল।

বিখ্যাত আজওয়া খেজুরও ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য উপকারী বলে একটি স্বাস্থ্যগবেষণায় বলা হয়েছে। অনেক পুরনো ডায়াবেটিস রোগী আজওয়া খেজুর খেয়ে উপকৃত হতে পারেন।

সব ডায়াবেটিস রোগীর জন্যই খেজুর উপকারী, এমনটি অবশ্য নয়। এ ক্ষেত্রে চিকিৎসকের মতামতই চুড়ান্ত। ডায়াবেটিস রোগীরা নিয়মিত খেজুর খেতে হলে ডাক্তারকে জানিয়েই খেতে হবে।

Leave a comment